Friday, এপ্রিল ১২, ২০২৪

যে আর্টিকেলে কিনতে পারবেন সুইজারল্যান্ডে স্পেশাল রেসিডেন্স পারমিট

ইউরোপ বাংলা ডেস্কঃ  সম্পদশালীরা জন্য সুইজারল্যান্ডে রেসিডেন্ট পার্মিট কিনতে পারবেন যেভাবে ?

ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশে আমরা জানি যারা সম্পদশালী, ধনী তারা চাইলে গোল্ডেন রেসিডেন্ট পার্মিট কিংবা  নাগরিকত্ব নিতে পারে।  যেসব তার বুলগেরিয়া  সাইপ্রাস মালটা অন্যতম।  যে কেউ রিয়েল এস্টেট কিংবা যদি প্রপার্টি কেনেন বা কোন  কাজে টাকা ইনভেস্ট করেন তাহলে নিতে পারবেন নাগরিকত্ব। এ দেশগুলোর সাথে আমরা পরিচিত হলেও আমি আজকে যে দেশটির ব্যাপারে কথা বলতে চাচ্ছি সেটির ব্যাপারে আমরা অনেকেই হয়তো জানি না তো আজকে আমরা মূলত জানবো ইউরোপের সবচেয়ে সম্পদশালী ধ্বনি একটি দেশের ব্যাপারে যে দেশে কিনা ধনী ব্যক্তিরা যাদের  অনেক টাকা আছে  তারা রেসিডেন্ট  কিনতে পারবেন তার ব্যাপারে আলাপ করবো।

সুইজারল্যান্ড,  ইউরোপের অন্যতম ধনী একটি রাষ্ট্র।  যে দেশের মাথাপিছু আয় এবং লিভিং  স্ট্যান্ডার্ড  হাই লেভেলের।  যদিও সবাই সেটেল হওয়া অনেকটা জটিল এবং সাধ্যের বাইরে।  তবে সুইজারল্যান্ড সেটেল হতে চাইলে  ফরেনার হিসাবে আপনি একটি আর্টিকেল ফলো করতে পারেন। সুইজারল্যান্ডের এলিয়েন অ্যাক্ট ৩০ অনুযায়ী  যেকোনো বিত্তবান ৩য় দেশের নাগরিক সুইজারল্যান্ডে রেসিডেন্ট পার্মিট কিনতে পারবেন।  আর্টিকেল ৩০ এর ইউ এর  বাইরের দেশগুলো নাগরিকদের জন্য বিশেষ আর্টিকেল।  এই আর্টিকেলের  মূল লক্ষ্য হচ্ছে যারা  সম্পদশালী,  ধনী  অনেক টাকা পয়সার মালিক তারা যেন সুইজারল্যান্ডে থাকার জন্য থাকার জন্য রেসিডেন্ট পার্মিট নিতে পারেন তবে এটা মাথায় রাখা দরকার যারা এই আর্টিকেলের সুইজারল্যান্ডে TRC  জন্য এপ্লাই করতে পারবে তাদের অবশ্যই বিদেশী নাগরিক হতে হবে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের বাহিরে এবং তাদেরকে সম্পদশালী ধনী ব্যক্তি হিসাবে প্রমাণ নিজের প্রমাণ দাখিল করতে হবে।  আর এই বিত্তবান চাইনিজরা প্রতিনয়ত ঝুঁকছে এই স্পেশাল পারমিট কেনার জন্য।  সাধারণত আমরা জানি ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের বাহির থেকে আগত নাগরিকের সুইজারল্যান্ডে থাকার জন্য রেসিডেন্স পারমিটের দরকার হয়,  যেটা ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন নাগরিক এবং ইউরোপিয়ান ইকোনমিক এরিয়ার নাগরিকদের দরকার হয় না।

ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের নাগরিকদের মূলত প্রেসিডেন্ট পারমিটের দরকার না পারার কারণ হলো তারা ফ্রী মুভমেন্ট এর আওতায় চুক্তিবদ্ধ। বিদেশি নাগরিকদের এই আর্টিকেলের রেসিডেন্ট পার্মিট নিতে হলে তাদেরকে যে জিনিসটা প্রথমে প্রমাণ করতে হবে তার মধ্যে অন্যতম হলো তিনি সম্পদশালী এবং  কোন প্রকার রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে কোনো টাকা-পয়সা বা সাহায্য নেবেন না অর্থাৎ বেনিফিট নেবেন না,  এবং তিনি সুইজারল্যান্ডে কোন প্রকার কাজ করবেন না। অর্থাৎ তাদেরকে টাকা পয়সার দিক দিয়ে সমৃদ্ধশালী হতে হবে এবং তারা সুইস সরকারের ওয়েলফেয়ার অ্যান্ড সোশ্যাল ফান্ড থেকে কোনপ্রকার বেনিফিট নেবেন না এবং সুইস  সরকারের কোন সেক্টরে তারা কাজ করবে না এই দুটি শর্ত যদি তারা ফিলাপ করে থাকে সে ক্ষেত্রে তারা কেবল আর্টিকেল ( 30) থার্টি আন্ডারে রেসিডেন্ট পার্মিট এর জন্য এপ্লাই করতে পারবে ।

এই আর্টিকেলের ভিত্তিতে তিনি চাইলে যেকোনো সুইস ক্যান্টনে রেসিডেন্ট পার্মিট এর জন্য এপ্লাই করতে পারবে তাদেরকে প্রাথমিকভাবে বি ক্যাটাগরির রেসিডেন্ট পার্মিট দেয়া হবে। সেজন্য তাদের কে নির্দিষ্ট ক্যান্টিনের বেঁধে দেওয়া ল ফলো করতে হবে। বাৎসরিক ট্যাক্স এর একটা বেপার আছে যা কান্টন ভিত্তিক আলাদা আলাদা সেট করা। আপনি যে কান্টনে আবেদন করবেন তাদের রিকয়ারমেন্টস অনুসরণ করতে হবে।

প্রতিবছর সুইজারল্যান্ডে ৪০ থেকে ৫০  জন এই রেসিডেন্ট পার্মিট কিনে থাকে। সুইস সংবাদমাধ্যম তাগেশ এন্ড জায়গার এর ভাষ্যমতে প্রতিবছর অল্পসংখ্যক রেসিডেন্ট পার্মিট ইস্যু করা হয়ে থাকে  এবং স্টেট  সেক্রেটারিয়েট ফর মাইগ্রেশন (SEM ) প্রতিবছর প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। স্পেশাল রেসিডেন্ট পার্মিট নিয়ে এ পর্যন্ত ৩৫২ জন বিদেশি নাগরিক সুইজারল্যান্ডে বসবাস করছে।  যাদের অধিকাংশই রাশিয়া সৌদি আরাবিয়া আমেরিকা এবং ব্রাজিলের নাগরিক।  উল্লেখযোগ্য  সংখ্যক চয়নিজ নাগরিক ও রয়েছে। তবে বর্তমানে চাইনিজ নাগরিকের সংখ্যা বেশি ইন্টারেস্ট দেখাচ্ছে এই স্পেশাল পারমিটের জন্য  স্টেট  সেক্রেটারিয়েট ফর মাইগ্রেশন (SEM ) এর তথ্যমতে। বিগত চার বছরে 34 জন চাইনিজ নাগরিক সুইজারল্যান্ডের এই স্পেশাল পারমিট নিয়েছেন।  যদিও ক্যান্টন তাদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করেনি ডাটা প্রটেকশন ল অনুযায়ী।  স্পেশাল পারমিট নেওয়া বিদেশি নাগরিক বেছে নিয়েছেন জেনেভাকে, অন্যান্য শহরের মধ্যে তিছিনো, ভাউড, যুগ, এবং সুইজের রাজধানী বার্ন রয়েছে।

স্পেশাল পারমিশন নেওয়ার অনেকগুলো সুবিধা রয়েছে।  সম্পদশালী  তৃতীয়  দেশের নাগরিকেরা সবচেয়ে ধনী দেশ এবং সবচেয়ে সুখী দেশ বসবাসের সুযোগ পেয়ে থাকেন এবং তার আরেকটি বেনিফিট হচ্ছে তারা সেনজেনভুক্ত বাকি দেশগুলোতে কোন প্রকার ঝামেলা ছাড়া ট্রাভেল করতে পারে। সুইজারল্যান্ডের ২.১ মিলিয়ন বিদেশি নাগরিক বসবাস করেন যা সুইজারল্যান্ড এর মোট জনসংখ্যার ২৫.১ ভাগ।

ইউরোপ বাংলার অন্যান্য লিখা আর্টিকেলঃ

সোর্স :www.lifesineurope.com

ইউরোপ বাংলা

ইউরোপ বাংলা

একজন ফ্রিল্যান্স রাইটার, ব্লগার, এডুকেশনাল কনসালট্যান্ট, ক্যারিয়ার কাউন্সিলর, উদ্যোক্তা।

Related Posts

Next Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

I agree to the Terms & Conditions and Privacy Policy.

ফেসবুকে ইউরোপ বাংলা