Wednesday, ফেব্রুয়ারী ২৮, ২০২৪

পর্তুগালের লিসবন সহ সারাদেশে ১লা জুলাই থেকে কঠোর নতুন নিয়ম

লিসবন মেট্রোপলিটন এরিয়ার ১৯  টি ফ্রেগজিয়ায় দুর্যোগপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত

ইউরোপ বাংলা ডেস্কঃ লিসবন মেট্রোপলিটন এরিয়ার জনগণের জন্য বহু প্রতীক্ষিত স্বাভাবিক জীবন যাপনের ফিরে যাবার কাঙ্খিত তারিখ পয়লা জুলাই আনন্দের বার্তা নিয়ে আসতে পারল না,। জুনের মাঝামাঝি থেকে লিসবন মেট্রোপলিটন এরিয়া সংক্রমনের সংখ্যা বাড়তে থাকায় চলতি সপ্তাহের শুরুর দিকে জরুরিভাবে   কড়াকড়ি আরোপ করা হয় এবং নির্দেশনা ঠিক করতে গতকাল মন্ত্রিসভার মিটিংয়ে ১৯ টি ফ্রেগজিয়ায় আরো বেশি কঠিন সিদ্ধান্ত আসে যা এবং সারা দেশের জন্য ভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

লিসবন মেট্রোপলিটন এরিয়া বা গ্রান্দে লিসবোয়া অঞ্চলের জন্য নিম্নরূপ নিয়ম:

১। সর্বোচ্চ ১০ জনের বেশি একত্রিত হওয়া নিষিদ্ধ

২। সার্ভিস স্টেশনগুলোতে অ্যালকোহল বিক্রয় নিষিদ্ধ

৩। সকল বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান সন্ধ্যা আটটার সময় বন্ধ করতে হবে তবে নিচের লিস্টের প্রতিষ্ঠানগুলো ব্যতিক্রমঃ

  • রেস্টুরেন্ট পরিবেশন এবং ডেলিভারি
  • সুপার মার্কেট এবং হাইপার মার্কেট (রাত দশটা পর্যন্ত)
  • জ্বালানি সরবরাহ
  • ক্লিনিক, মেডিকেল কনসালটেন্ট অফিস, পশু চিকিৎসক
  • ওষুধের দোকান
  • শেষকৃত্যের সেবা
  • খেলাধুলার সরঞ্জামাদি

১৯  টি ফ্রেগজিয়ায় মধ্যে Amadora এর সকল ফ্রেগজিয়ায়  (Mina de Água, Águas Livres, Encosta do Sol, Venda Nova, Falagueira, Alfragide e Venteira), Odivelas এর ৪টি ফ্রেগজিয়া ( Pontinha e Famões,  Póvoa de Santo Adrião e Olival Basto,  Ramada e Caneças e Odivelas). Lisboa, এর 1 টি ফ্রেগজিয়া (Santa Clara), Loures, এর 2 টি ফ্রেগজিয়া (Sacavém e Prior Velho, e Camarate, ) Sintra, এর 6 টি ফ্রেগজিয়া Queluz/Belas, Massamá/Monte Abraão, Cacém/São Marcos, Agualva/Mira Sintra, Algueirão/Mem Martins e  Rio de Mouro.

উপরোক্ত দুর্যোগপূর্ণ ফ্রেগজিয়া জন্য উক্ত নিয়মে সঙ্গে আরও তিনটি বিষয় যুক্ত করা হয়েছে

  • নাগরিক দায়িত্ব হিসেবে ঘরে অবস্থান করা
  • মেলা এবং খোলাবাজারে নিষিদ্ধ
  • সর্বোচ্চ পাঁচ জনের বেশি একত্রিত হওয়া নিষিদ্ধ

তবে লিসবন মেট্রোপলিটন এর বাইরে দেশের অন্যান্য অঞ্চলের জনগণের জন্য অনেকটা শিথিল করা হয়েছে সেক্ষেত্রে তারা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে পারেন।তবে প্রধানমন্ত্রী হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন কোন কারনে সংক্রমণ বেড়ে গেলে নির্দিষ্ট দুর্যোগপূর্ণ অঞ্চলে উপরোক্ত নিয়ম-কানুন আরোপিত হতে পারে তাই জনগণকে দায়িত্বশীলতার সাথে স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বাভাবিক কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান জানিয়েছেন।

পর্তুগালের সারা দেশের জন্য (লিসবন মেট্রোপলিটন এরিয়া এর বাইরে) ১লা জুলাই থেকে বিভিন্ন নিয়ম প্রবর্তন করা হয়েছে তা নিম্নরূপ:

  • সর্বোচ্চ 20 জন লোকের একত্রিত হওয়া নিষিদ্ধ
  • রাস্তায় অ্যালকোহল যুক্ত পানীয় পান করা নিষিদ্ধ
  • অসুস্থ ব্যক্তির জন্য সক্রিয় নজরদারি এতদিন যে নিয়ম রয়েছে তা বাধ্যতামূলক মেনে চলা
  • নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব , মাস্ক ব্যবহার, এরিয়া ভিত্তিক নির্দিষ্ট সংখ্যা, স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী সময় মেনে চলা।

উপরোক্ত নিয়ম অবহেলা করলে বা নিয়ম ভঙ্গ করলে ব্যক্তি পর্যায়ে ১০০ থেকে ৫০০ ইউরো এবং কোম্পানির ক্ষেত্রে ৫০০ থেকে ৫,০০০ ইউরো পর্যন্ত জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। ডরিমনের বিধানটি সমগ্র দেশের জন্যই কার্যকর। উপরোক্ত বিধিবধান টি কোন প্রকার নতুন কোন দুর্যোগ সৃষ্টি না হলে আগামী ১৪ ই জুলাই পর্যন্ত কার্যকর থাকবে বলে প্রধানমন্ত্রী নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, ২ মার্চ দুজন আক্রান্তের মধ্য দিয়ে পর্তুগালে কোভিড-১৯ সংক্রমণ শুরু হয়।  ২৫ শে জুন পর্যন্ত মোট ৪০ হাজার ৪১৫ জন আক্রান্ত হন এবং ১ হাজার ৫৪৯  জন মৃত্যুবরণ করেন। এ পর্যন্ত ২৬ হাজার ৩৮২ জন সুস্থ হয়েছেন।

 

আরও পড়ুন

ফরিদ আহমেদ পাটওয়ারি

ফরিদ আহমেদ পাটওয়ারি

আমি প্রবাসী বাংলাদেশী হিসেবে পর্তুগালে বসবাস করছি। এখানে জীবন-জীবিকার পাশাপাশি পর্তুগিজ এবং বাংলাদেশ কমিউনিটিতে বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডে যুক্ত রয়েছি। পর্তুগালের পথচলা ২০১৫ সালে তবে এর পূর্বে বাংলাদেশে একটি স্বনামধন্য রিয়েল এস্টেট প্রতিষ্ঠান প্রধান নির্বাহী হিসেবে কর্মরত ছিলাম। শিক্ষাজীবন ঢাকা কলেজ থেকে ২০০৪ সালে স্নাতক ডিগ্রি এবং আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক এবং বলাখাল জে এন হাই স্কুল থেকে মাধ্যমিক । বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অফ ম্যানেজমেন্ট থেকে ব্যবস্থাপনা বিষয়ে পোস্ট গ্রাজুয়েট কোর্স তাছাড়া শিক্ষাজীবন এবং কর্মজীবনে হিউম্যান রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট, ব্যবস্থাপনা, আইটি সম্পর্কিত বিভিন্ন স্কিল ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামে যুক্ত ছিলাম। ২২ বছরের কর্মজীবন কেটেছে মিডিয়া, হোটেল ম্যানেজমেন্ট, আইটি,  সেলস এন্ড মার্কেটিং এবং মার্চেন্ডাইজার হিসেবে। ফটোগ্রাফি, লেখালেখি, ভ্রমণ এবং টেকনোলজির প্রতি আগ্রহ রয়েছে শখ ও বলা যায়। এরমধ্যে লেখালেখিটা শক্ত হাতে ধরেছি, সুন্দর একটা পরিবর্তন এর আশায়। জীবনের মূল লক্ষ্য হচ্ছে সুন্দর এবং শান্তিপূর্ণ পৃথিবী গঠনে মানুষের সহযোগিতায় কাজ করে যাওয়া।

Related Posts

Next Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

I agree to the Terms & Conditions and Privacy Policy.

ফেসবুকে ইউরোপ বাংলা