Friday, এপ্রিল ১২, ২০২৪

মহানবীকে নিয়ে কটূক্তির নিন্দা জানালো যুক্তরাষ্ট্র

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)কে নিয়ে ভারতে কটূক্তি করার নিন্দা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বৃহস্পতিবার রাতে নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নেড প্রাইস। তিনি ওই ঘটনার নিন্দা জানিয়ে মানবাধিকারের প্রতি সম্মান দেখানোর আহ্বান জানান। তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমরা নিন্দা জানিয়েছি। বিজেপির দু’জন কর্মকর্তা যে আপত্তিকর মন্তব্য করেছেন তার নিন্দা জানাই আমরা। আমরা খুশি এ জন্য যে, দলটি প্রকাশ্যে এসব মন্তব্যের নিন্দা জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)কে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেন বিজেপির জাতীয় পর্যায়ের মুখপাত্র নূপুর শর্মা ও দিল্লি মিডিয়া শাখার প্রধান নবীন কুমার জিন্দাল। এ নিয়ে আরব বিশ্বে তীব্র ক্ষোভ দেখা দেয়ায় নূপুর শর্মাকে তার পদ থেকে সাময়িক এবং নবীন জিন্দালকে বরখাস্ত করে বিজেপি। তাতেও ক্ষোভ প্রশমিত হচ্ছে না। এ জন্য ভারত সরকারকে প্রকাশ্যে মাফ চাওয়ার দাবি করা হচ্ছে মুসলিমদের পক্ষ থেকে। নূপুর শর্মা ও নবীন জিন্দালের ওই মন্তব্যের বেশ কয়েকদিন পরে যুক্তরাষ্ট্র সরকার এর নিন্দা জানালো।

ওই মন্তব্যের পর পাকিস্তান, সৌদি আরব, কাতার, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, ওমান, ইন্দোনেশিয়া, ইরাক, মালদ্বীপ, জর্ডান, লিবিয়া ও বাহরাইন সহ বহু মুসলিম দেশ নিন্দা জানিয়েছে। একই সঙ্গে ভারতীয় পণ্য বর্জন শুরু করেছে। কিন্তু বাংলাদেশ এ বিষয়ে কোনো কথা বলেনি।

এ ইস্যুতে প্রতিবাদী মুসলিমদের ওপর ভারতের ঝাড়খন্ডে পুলিশ গুলি চালিয়ে দু’জন মুসলিমকে কয়েকদিন আগে হত্যা করেছে। সেখানে একজন মুসলিম নারীকর্মীর বাড়ি ভেঙে দেয়া হয়েছে। এর প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার রাতে ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে পড়েন নেড প্রাইস।

তিনি নিন্দা জানানোর পাশাপাশি বলেন, মানবাধিকার ও ধর্মীয় স্বাধীনতার বিষয়টি নিয়মিতভাবে তুলে ধরে মার্কিন সরকার। তার ভাষায়, আমরা নিয়মিতভাবে ভারত সরকারের সিনিয়র পর্যায়ের সঙ্গে মানবাধিকারের উদ্বেগের বিষয়ে যোগাযোগ রাখছি। এর মধ্যে আছে ধর্মীয় ও বিশ্বাসগত স্বীধীনতা। মানবাধিকারের প্রতি সম্মান দেখাতে ভারত সরকারকে আমরা উৎসাহিত করি।

ওই ব্রিফিংয়ে তিনি পাকিস্তানকেও যুক্তরাষ্ট্রের অংশীদার হিসেবে উল্লেখ করেন। দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক শক্তিশালী করার ওপর জোর দেন। নেড প্রাইস বলেন, আমাদের একটি অংশীদার হলো পাকিস্তান। আমরা সেই অংশীদারিত্বকে এমনভাবে সামনে এগিয়ে নিতে চাই, যাতে আমাদের স্বার্থ এবং পারস্পরিক স্বার্থ রক্ষা হয়।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র সফর করেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি। এ সময়ে তিনি সাক্ষাত করেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেনের সঙ্গে।

এ প্রসঙ্গে নেড প্রাইস বলেন, পাকিস্তানে নতুন সরকারের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বেশ কয়েক দফা বৈঠক হয়েছে মার্কিন সরকারের। এসব বৈঠক ছিল খুবই ভাল, গঠনমূলক। এতে খাদ্য নিরাপত্তা থেকে শুরু করে বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা হয়েছে।

Related Posts

Next Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

I agree to the Terms & Conditions and Privacy Policy.

ফেসবুকে ইউরোপ বাংলা