Wednesday, ফেব্রুয়ারী ২৮, ২০২৪

প্রথম বক্তৃতায় যা প্রতিশ্রুতি দিলেন লিজ ট্রাস

ইউরোপ বাংলা ডেস্ক : কর কমানো, জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধি রোধে পদক্ষেপ এবং স্বাস্থ্যসেবায় সবার সুযোগ তৈরি করাসহ অর্থনৈতিক সমস্যা মোকাবিলায় সাহসী পরিকল্পনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী লিজ ট্রাস। ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী হিসাবে তার প্রথম বক্তৃতায় তিনি এ প্রতিশ্রুতি দেন।

প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের বাইরে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, ইউক্রেনে রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে ব্রিটেন মারাত্মক এক বৈশ্বিক বাধার মুখোমুখী হয়েছে। কিন্তু আমি নিশ্চিত, একসঙ্গে কাজ করে আমরা এ ঝড় থেকে বেরিয়ে আসতে পারবো। আমরা আমাদের অর্থনীতি পুনঃনির্মাণ করতে পারবো এবং আধুনিক দক্ষ ব্রিটেন হয়ে উঠতে পারবো। বিশ্বজুড়ে জ্বালানি সংকটের জন‌্য রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে দোষারোপ করেন তিনি। এ সংকট মোকাবিলা করতে নিজে সক্রিয়ভাবে কাজ করার পরিকল্পনা করেছেন বলে তিনি জানান।

এদিকে নতুন প্রধানমন্ত্রী লিজ ট্রাস মন্ত্রিসভায় বড় পরিবর্তন এনেছেন। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মন্ত্রিসভয়ায় ট্রাসের ঘনিষ্ঠরা স্থান পেয়েছেন।মন্ত্রীর তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন প্রভাবশালী অনেক নেতাই। কোয়াসি কোয়ার্টেংকে ট্রাসের নতুন মন্ত্রিসভায় অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। জেমস ক্লিভারলি পেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হয়েছেন সুয়েলা ব্রাভারম্যান। মিশেল ডোনেলানকে দেওয়া হয়েছে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব। ট্রাসের কাছের বন্ধু থেরেসে কফে দেশটির নতুন উপপ্রধানমন্ত্রী ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী হয়েছেন।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের মন্ত্রিসভার অনেকে ট্রাসের নতুন মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়েছেন। এর মধ্যে রয়েছে সাবেক বিচারবিষয়ক মন্ত্রী ডোমিনিক রাব। এছাড়া সাবেক পরিবহনমন্ত্রী গ্রান্ট শ্যাপস ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্টিভ বার্কলে নতুন মন্ত্রিসভার তালিকায় নেই। দেশটির সাবেক আন্তর্জাতিক বাণিজ্যবিষয়ক মন্ত্রী পেনি মরডান্টকে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব কমন্সের নেতার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এছাড়া নতুন আন্তর্জাতিক বাণিজ্যবিষয়ক মন্ত্রী হয়েছেন কেমি ব্যাডেনচ। কর্ম ও পেনশন–বিষয়ক মন্ত্রী হয়েছেন ক্লো স্মিথ। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন কিট মাল্টহাউস।

জ্যাকব রিস-মগ ব্যবসা, জ্বালানি ও শিল্পকৌশল–বিষয়ক মন্ত্রী হয়েছেন। লেভেলিং আপ মন্ত্রণালয়ের হাল ধরছেন সিমন ক্লার্ক। আর অ্যানি-ম্যারি ট্রেভেলিয়ানকে পরিবহনমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

Related Posts

Next Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

I agree to the Terms & Conditions and Privacy Policy.

ফেসবুকে ইউরোপ বাংলা